Friday, August 7, 2015

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীরে শরীয়ত শাহ আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুর কামরাংগীরচরের নূরীয়া মাদ্রাসার মোহতামীম এর দ্বায়িত্ব গ্রহন করেছেন



হযরত হাফেজ্জী হুজুর রহ. এর সুযোগ্য সাহেবজাদা, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন প্রধান আমীরে শরীয়ত হাফেজ মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরস্থ ঐতিহ্যবাহী “জামিয়া নূরিয়া ইসলামিয়া”র মুহতামিম হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। এ উপলক্ষে জামিয়া নূরিয়ার ছাত্র শিক্ষক ও এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিদের নিয়ে অনুষ্ঠিত এক আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। মাহফিলে হাফেজ মাওলানা আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুর জামিয়ার মুহতামিমের দায়িত্ব নিয়ে মহান আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করে মাদরাসা পরিচালনার ক্ষেত্রে দল মত নির্বিশেষে সকলের সহযোগীতা কামনা করেন। তিনি হাফেজ্জী হুজুর রহ. এর সকল স্বপ্ন বাস্তবায়নে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে বলেন, হাফেজ্জী হুজুর দ্বীনি শিক্ষা সম্প্রসারন ও সর্বসাধারণের আত্মসংশোধনে জাতীয় কেন্দ্র হিসেবে জামিয়া নূরিয়া ইসলামিয়া কামরাঙ্গীরচর মাদরাসাসহ অনেক দ্বীনি প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করে গেছেন। তার এই স্বপ্ন বাস্তবায়নে অচিরেই নূরিয়া মাদরাসাকে একটি পূর্ণাঙ্গ ইসলামি কওমি বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত করতে হবে।

মাওলানা আতাউল্লাহ আরো বলেন, জাতীয় জীবনে চালিকা শক্তি রাজনীতিকে ইবাদতে পরিণত করতে হাফেজ্জী হুজুর রহ. নূরিয়া থেকে তওবার রাজনীতি খেলাফত প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানিয়ে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে গেছেন। আমরা তার পদাঙ্ক অনুসরণ করে চলবো ইনশাআল্লাহ। তিনি দেশে চলমান সহিংসতা, নৃশংসতা ও নিষ্ঠুরতার জন্য শিক্ষার দৈন্যতাকে দায়ী করে বলেন, সভ্য সমাজ ও শান্তিপূর্ণ দেশ প্রতিষ্ঠায় দেশে ইসলামি শিক্ষা সম্প্রসারণ ও ইসলামি হুকুমত বাস্তবায়নের কোনো বিকল্প নেই।

হাফেজ্জী হুজুর পথহারা মানুষদের সঠিক পথের দিশা দেওয়ার জন্য সারা জীবন দ্বীনি মাদরাসা, মসজিদ প্রতিষ্ঠা করে গেছেন। হাফেজ্জী হুজুরের পথ ধরে এগিয়ে যেতে পারলে সমাজ ও দেশে আদর্শ নাগরিক পয়দা হবে, হত্যা-ধর্ষণসহ অমানবিক ও পৈশাচিক আচরণ থেকে মানুষ বিরত থাকবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার (৬ই আগস্ট ২০১৫)  বাদ জোহর মারকাযুল খেলাফত জামিয়া নূরিয়ায় অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন হাফেজ্জী হুজুর রহ. এর বিশিষ্ট খলিফা, শাইখুল হাদীস আাল্লামা ছোলাইমান নোমানী। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, খেলাফত আন্দোলনের মহাসচিব মাওলানা মুহাম্মাদ জাফরুল্লাহ খান, জামিয়ার সাবেক মুহতামিম আমীরে শরীয়ত মাওলানা শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফের বড় ছেলে হাফেজ মাওলানা ওলিউল্লাহ মিয়াজী, জামিয়ার নায়েবে মুহতামিম মাওলানা মুহিব্বুল্লাহ আশরাফ, মাওলানা আবু জাফর কাসেমী, এলাকার প্রবীণ মুরুব্বী জনাব আব্দুল মান্নান মেম্বার, আলহাজ্ব আবুল হোসেন সরকার, আলহাজ্ব সোলাইমান মাতবর প্রমূখ। উপস্থিত ছিলেন আহমাদুল্লাহ আশরাফের সাহেবজাদা, জামিয়ার শিক্ষাসচিব মুফতি এনায়েতুল্লাহ আশরাফ, মাওলানা নেয়ামতুল্লাহ মিয়াজী, ৫৫নং ওয়ার্ড কমিশনার নুরে আলম সিদ্দিকী, আব্দুর রহিম ঝাউচরী, আলহাজ্ব নাজিম উদ্দিন মেম্বার ও আলহাজ্ব ইয়াকুব আলী মন্টুসহ জামিয়া নূরিয়ার সকল শিক্ষকমন্ডলী।

Press Release by: Sutan Mohiuddin